Tuesday, 15 October 2019

How to Improve Your Motivational Skill, Series 44 (Prerana)


প্রেরণা সিরিজ - ৪৪ ,  PRERANA SERIES - 44    (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্রদীপ কুমার রায়।
                                                  আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে, করে দেবে। শুরু করছি আজকের বিষয় 
                                         নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog   স্বাগতম।আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।


আমার ওয়েবসাইট ভিজিট করতে এখানে ক্লিক করুন 

                                               স্কুল জীবনের নিরীহ স্বপ্নগুলো যেন পরবর্তীকালে আচমকা সাবালক হয়ে যায়। তোমার ইচ্ছাটাকে সফল করতে হলে চাই যোগ্যতা। অন্যে তোমার সম্পর্কে কে কী ভাবল তা তুমি যত না ভাববে ততই ভালো। তুমি শুধু ভাব তোমার পরিকল্পনা , লক্ষ্য নিয়ে যা তোমার স্বপ্নকে সফল করবে। স্বপ্ন দেখা খুব সহজ ,কিন্তু তাকে বাস্তবে রূপ দেওয়াটা খুব সহজ নয়। সেটার জন্য চাই ধারাবাহিক সফলতা। এলবার্ট আইনস্টাইন বলেছিলেন ," সত্যিকারের শিল্প বা বিজ্ঞানের পিছনে প্রেরণা যোগায় রহস্য, আর রহস্যে যে মানুষ আকৃষ্ট হয় না সে নিভে যাওয়া মোমবাতি"।

                                                  ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে আনন্দের স্বপ্ন না দেখে , জেগে অন্যের জন্য সেবা করে আনন্দ উপভোগ কর। এটাই তোমার কাছে  একটি উপহার হবে যদি তুমি নেতিবাচক মনোভাব পোষন না কর এবং সেটাই সাফল্য আনতে  সাহায্য করবে। ডিজনিল্যান্ডের সংস্থাপক ওয়াল্ট ডিজনি বলতেন,"আপনারা যদি স্বপ্ন দেখতে পারেন, তাহলে আপনারা সেই স্বপ্নকে সাকার করেও তুলতে পারবেন"।


                                          পড়াশোনার সময় ঠিক ঠিক মনঃসংযোগ করতে হবে। তার জন্য ঠিক সময়ে ঘুমের খুব প্রয়োজন। আমাদের শরীরের পক্ষে কতটা ঘুম নিদেনপক্ষে প্রয়োজন -- তা নিয়ে মতভেদ আছে বিজ্ঞানীদের মধ্যে। অনেকে বলেন-- যে কোনো পূর্ণবয়স্ক মানুষের প্রতিদিন গড়ে সাত থেকে আট  ঘন্টা ঘুম দরকার। তা না হলে তার স্মৃতিশক্তি ক্রমশঃ দুর্বল হয়ে পরবে  এবং দিনের বেলা কাজ করার সময় অবসাদে ভুগবেন। রাত্রিবেলা ঠিকমতো ঘুম না হলে শারীরিক উপসর্গের পাশাপাশি কিছু কিছু মানসিক গন্ডগোল দেখা দেওয়ার সম্ভবনা থেকে যায় এবং সকাল থেকেই মেজাজটা খিটখিটে হবে ও অলীক সব ভাবনা মনের মধ্যে ঘুরতে থাকবে। আমাদের ঘুমের একটা ছন্দ আছে এবং সেটা একটু খেয়াল করলেই বুঝতে পারা  যায়। চোখ বুজে বিছানায় শোওয়ার পর  শরীরটা শিথিল হয়ে আসে প্রথমে। তারপর চোখে নামে  ঘুম। এটা  হল হালকা ঘুমের অবস্থা। মিনিট পনেরোর মধ্যে মস্তিস্ক পূর্ণ বিশ্রামে চলে যায় ,হালকা ঘুম রূপান্তরিত হয় গভীর ঘুমে। ঐ সময় যদি কাউকে ডেকে তোলা হয় তবে তার শরীর  ম্যাজ  ম্যাজ করতে পারে। সেক্ষেত্রে তার  ক্লান্তি পরের গোটা দিনে  নাও কাটতে পারে। আমাদের ঘুমের যেমন একটা ছন্দ আছে তেমনই একটা চক্রও আছে। সাধারণত প্রতিটি ঘুমচক্রের মেয়াদ আড়াই ঘন্টার হয়ে থাকে। কারোর যদি ঘুমচক্রের সময় জানা থাকে , তাহলে সুবিধা হয়।
Milk and Honey 

                                         তুমি প্রতিদিন যে সময় ঘুমোতে যাচ্ছো ,যদি সেটা কোনো কারনে বিলম্বিত হয় তাহলে তোমার পরবর্তী  ঘুম চক্রের জন্য অপেক্ষা করা উচিত। ধর ,তুমি প্রতিদিন রাত  এগারোটায় ঘুমাতে যাও। পুজোর সময় বা বাড়িতে কোনো অনুষ্ঠানের সময় ঘুমোতে যেতে প্রায় বারোটা বেজে গেল, সেক্ষেত্রে ঘুমের বারোটা বেজে যাবে। কারন এগারোটার সময় ঘুম এসে ফিরে  গেছে , এক্ষেত্রে বিছানায় এপাশ ওপাশ না করে , অস্থির না হয়ে ঘুমের জন্য অপেক্ষা করাটাই উচিত। যদি তোমার ঘুমের সময় এগারোটা হয় তবে পরবর্তী চক্র একটার সময় আসবে। সেক্ষেত্রে বই  পড়ো এবং ঘুমচক্র শুরু হওয়ার মিনিট কয়েক আগে বিছানায় গিয়ে শোও। এক্ষেত্রে কয়েক মিনিটেই তুমি পৌঁছে যাবে ঘুমের  জগতে। শরীর বিজ্ঞানীরা ঘুমকে দুটো ভাগে ভাগ করেছেন। একটাকে বলা হচ্ছে 'রেপিড আই মুভমেন্ট ' বা সংক্ষেপে 'রেমা' মানে ঘুমের যে অবস্থায় চোখের মণি দ্রুত নড়াচড়া করে, আর দ্বিতীয়টা হল 'নন-রেপিড আই মুভমেন্ট ' বা 'এন -রেম', অর্থাৎ ঘুমের যে অবস্থায় চোখের মানি থাকে স্থির। ঘুমের মধ্যে চোখের  মনির নড়াচড়ার পর্ব  দুটো চলতে থাকে পর্যায়ক্রমে।


জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি| প্রত্যেক মানুষই চায় তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন |
এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে 
মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।


No comments:

Post a comment