Thursday, 9 April 2020

আপনার অনুপ্রেরণামূলক দক্ষতা কীভাবে উন্নত করবেন, সিরিজ-১০৮(প্রেরণা)[How to Improve Your Motivational Skill, Series-108 (Prerana)]

প্রেরণা সিরিজ - ১০৮,PRERANA SERIES-108 (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয়   নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog  স্বাগতম।  আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।



প্রতি দিন নতুন সূর্যের আলো নতুন আশা নিয়ে সামনে এসে দাঁড়ায়। তাই আশা হারানো যাবে না। অবক্ষয়ই একমাত্র সত্য নয়। আশা রাখার মতো আরও অনেক কিছুই রয়েছে। ভবিষ্যতের মানুষ এই আশার পালে জোর হাওয়া দেবে; একদিন এ পৃথিবীকে নতুন রূপে, নতুন চিন্তাধারায়, সত্যিকারের মনুষ্যত্বে উজ্জীবিত প্রকৃত মানুষের রূপে ভরিয়ে তুলবে। এ জন্য চাই মনুষ্যত্বের জাগরণ। এ জাগরণের জন্য চাই প্রকৃত ধর্মীয় শিক্ষা। যার মাধ্যমে আমরা নিজের মনুষ্যত্বের বিকাশ ঘটাতে পারি এবং তারই মাধ্যমে এক প্রকৃত মানব সমাজ গড়ে তুলতে পারব। ভবিষ্যতের এ আদর্শ সমাজ গড়ে তুলতে সদ্যোজাত শিশুই আমাদের আগামী দিনের দিশারি। তাদের উপযুক্ত ধর্মীয় শিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষিত করে তুলতে পারলে এ কলুষিত জগৎ একটি নির্মল স্বাস্থ্যবান জগতে পরিণত হবে। আর এ প্রজন্মকে উপযুক্ত দিশা দেওয়ার জন্য বর্তমানে প্রাপ্তবয়স্কদের উপযুক্ত ভূমিকা নিতে হবে।
শৃঙ্খলা দেখেছি আমি পিঁপড়ের মধ্যে,যারা একজনকে টপকে একজন সামনে যায়না।একতা দেখেছি আমি কাকের মধ্যে ,যারা একজন বিপদে পড়লে ১০০ জন তৎক্ষনাৎ হাজির হয়ে যায়,বিশ্বস্ততা দেখেছি আমি কুকুরের মধ্যে,যারা তার মনিবের জন্যে জীবন দিতে পারে।স্বচ্ছতা দেখেছি আমি পায়রার মধ্যে , যারা তার সরল মনে একজন অপরিচিত মানুষকেওঅল্পসময়ে বিশ্বাস  করে।পরিশ্রম দেখেছি আমি ঘোড়ার মধ্যে , যারা তার মনিবকে নিয়ে ছুটে যায় ঘন্টার পর ঘন্টা কোনো প্রতিবাদ ছাড়াই। সাম্যতা দেখেছি আমি মৌমাছির মাঝে,যারা সবাই একত্রে মধু সংগ্রহ করে।তবে আমি হিংসা, ক্রোধ, রাগ, অহঙ্কার, নিষ্ঠুরতা, দেখেছি সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব কিছু মানুষের মধ্যে !তাই আসুন আমরা সবাই হিংসা,ক্রোধ,অহঙ্কার ভুলে সর্বজীবে প্রেম ও  সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করি।

একদিন এক রাজার হাতের একটি আঙ্গুল কেটে গেছে, তখন রাজা তার মন্ত্রীকে বলল দেখ আজ হটাৎ আমার আঙ্গুলটা কেটে গেছে। শুনে মন্ত্রী বলল দুঃখ করবেন না ভগবান যা করেন ভালোর জন্য করেন। রাজা ভাবল আমার আঙ্গুল কেটেছে কোথায় সমবেদনা জানাবে, উল্টো বলছে ভগবান যা করেন ভালর জন্য করেন। সাথে সাথে সে তার অন্য মন্ত্রীদের বলল এই মন্ত্রীকে এখনই জেলে প্রেরণ করো। এবং তখনই মন্ত্রীকে কারাগারে বন্দী করা হলো। কিছুদিন পর রাজা শিকারের উদ্যেশ্যে বনে গেলেন হটাৎ দেখলেন সামনে একটা হরিণ এবং এর পেছন পেছন দৌড়াতে লাগলেন কিন্তুু হরিণ শিকার করতে পারলেন না। তিনিও পথ হারিয়ে এক গাছ তলায় বসে রইলেন।

এদিকে সেই রাজ্যে প্রতি বছর একটা করে নিখুঁত  নরবলি দেওয়া হয় এবং সেটা এই রাজ্যের রাজার আদেশ। কিন্তুু নিখুঁত  মানুষ পাওয়া যাচ্ছে না, হঠাৎ এই রাজাকে দেখে তারা রাজাকে ধরে নিয়ে গেলো তখন রাজা বললেন আমাকে কেন নিয়ে যাচ্ছ আমি একজন রাজা আমাকে ছেড়ে দাও। যাহোক পরের দিন রাজাকে বলি দেওয়া হবে তাই তাকে যখন সবাই ধরে নিয়ে স্নানে বসিয়েছে তখন দেখলো তার হাতের একটি আঙ্গুল নেই। যেহেতু আঙ্গুল একটি নেই তাই তাকে আর বলি দেওয়া হলো না। ছেড়ে দেওয়া হলো। রাজা তখন দেশে এসে মন্ত্রীকে ছেড়ে দিয়ে বললেন আপনার কথাই ঠিক ভগবান যা করেন ভালই করেন। কিন্তুু তাহলে আপনি কেন জেলে বন্দী হলেন? এটাও কি ভগবান ভালো করেছেন? মন্ত্রী বলল হ্যা  এটাও ভগবান ভালোই করেছেন। আজ যদি আমি জেলে না থাকতাম তাহলে আপনার সাথে আমিও যেতাম এবং নিশ্চিত আমাকে বলি দিত। তবে মাঝে মাঝে বর্তমান পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আমরা ভাবি আমার সাথেই কেন এমন হয়,কিন্তু আমরা এটা ভাবি না যে হয়ত ভবিষ্যতে এই পরিস্থিতির  জন্যই আমরা এমন কিছু লাভ করতে চলেছি যা অমূল্য। 
জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি। প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন। এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।

Wednesday, 8 April 2020

আপনার অনুপ্রেরণামূলক দক্ষতা কীভাবে উন্নত করবেন, সিরিজ-১০৭(প্রেরণা)[How to Improve Your Motivational Skill, Series-107 (Prerana)]

প্রেরণা সিরিজ - ১০৭,PRERANA SERIES-107 (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয়   নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog  স্বাগতম।  আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।


আমার ওয়েবসাইটে যেতে এখানে ক্লিক করুন

সুন্দর চেহারা দিয়ে কি হবে যদি চরিত্র ঠিক না থাকে? উচ্চতর ডিগ্রি দিয়ে কি হবে যদি অন্তরে গীতার জ্ঞান না থাকে? সম্পদ দিয়ে কি হবে যদি তা জনগনের  সেবায় না লাগে? পৃথিবীর সবকিছু পেলেও কি হবে? যদি, মানুষ  না হন ? সুতরাং, এখন থেকেই আমাদের হৃদয়ের সব কালো অন্ধকার সনাতনের দিব্য আলোয় আলোকিত করা উচিৎ। যে পথ সত্যের, মানবিকতার, দয়ার ও ভালবাসার সেই পথেই মানুষের  পাশে থাকা যায় । অসৎ পথ অন্ধকারের, আর অন্ধকারে নিজের ছায়াও পাশে থাকে না।। তাই সৎ পথে চলুন, সত্য কথা বলুন এবং সৎ কর্ম করুন সদা সর্বদাই মানুষ  আপনার পাশে থাকবেন। সৎ পথে চলা হয়তো একটু কষ্ট হবে কিন্তু জয় একদিন আপনারই হবে। 

জল দুধের সাথে বন্ধুত্ব করল এবং নিজের স্বরুপ ত্যাগ করে দুধের সাথে  মিশে গেল। এই দেখে দুধ জলকে বলল, তুমি যেভাবে শুধু বন্ধুত্বের কারনে নিজের স্বরুপ ত্যাগ করে আমার সাথে মিশে গেলে, আমিও আমাদের বন্ধুত্ব পালন করব, আজ থেকে তুমিও আমার দামেই বিক্রি হবে? তাই দুধকে যখন ফোটানো হয়,তখন জল বলে,এবার আমার বন্ধুত্ব পালন করার পালা,তাই তোমার থেকে আগে আমি মৃত্যু বরন করবো! তাই জল আগেই শেষ হয়ে যায় , যখন দুধ তার বন্ধু জলকে এভাবে মৃত্যু বরন করতে দেখে, তখন দুধ উথলে উঠে  আগুনকে  নেভানোর চেষ্টা  করে,কিন্তু  যখনএকটু জলের ফোটা ছিটিয়ে তার বন্ধুকে উথলানো দুধের সাথে মিলিয়ে দেওয়া হয়, তখন দুধ আবার শান্ত হয়ে যায় ! কিন্তু এক ফোটা অম্ল সেই জল এবং দুধের নিবিড় বন্ধুত্বকে আলাদা করে দিতে পারে! তাই বন্ধুত্বের মাঝে কখনোই "অম্লত্ব " আসতে দেবেন না,কারন, সামান্য অম্ল গভীর বন্ধুত্ব ফাটল ধরাতে পারে! 

কার কাছে কত কোটি টাকা আছে, কটা গাড়ী আছে, কটা মহল আছে সেটা বড় কথা নয় , দরকার তো দুটো রুটি আর জীবন তো একটাই.। তাহলে কিসের অহংকার! শুধু ভাবুন,আপনি কতটা সময় খুশীতে কাটিয়েছেন,আর কতজনকে খুশী বিতরন করতে পেরেছেন। "নিন্দা " তারই হয় যিনি বেঁচে  আছেন,কারন মৃত্যুর পর তারই গুনগান করা হয়। গল্পটা একটু বড় হলেও এটাই বাস্তব। সব ফুল যেমন পূজায় লাগে না সব টাকাও তেমন ভগবানের সেবায়  লাগে না। গাছে তো ফুল অনেকই ফোটে তার কোনো ফুল মরা মানুষের সাথে শ্মশানে যায়, আবার কোনো ফুল গাছেই শুকিয়ে ঝরে পরে, আবার কোনো ফুল সুন্দর মালা হয়ে ভগবানের গলায় যায়। কোনো ফুল ফোটার পর বলতে পারে না কোথায় তার স্থান হবে।

যেই ব্যক্তি চরিত্রবান এবং সংস্কারি হয়, সে কাদায় ফোটা পদ্মের মতো হয়! যে তার সুগন্ধ চারপাশে ছড়িয়ে দেয়! সেরকম অপরদিকে সংস্কারহীন ব্যক্তি গোলাপের ফুলে থাকা কাঁটার মতো হয় , যারা এত সুন্দর সমাজে থেকেও তাদের খারাপ কাজ করে যায়! কেননা মানুষকে তাদের ধর্ম আর জাতি দিয়ে নয়, বরং তাদের কর্ম ও চরিত্র দিয়ে চিনতে হবে, বুঝতে হবে! একটা কাক যতই উঁচু টিলার ওপর উঠে বসুক না কেন, সে কখনোই চিল হতে পারবে না! সেরকম একটা লোক কতটা মহান, সেটা তার কোয়ালিটি, সংস্কার ও চরিত্র নির্ধারণ করে! আমাদের দুষ্ট লোকেদের তাদের কর্ম ও চরিত্র দেখে চিহ্নিত করতে হবে! তাদের ধর্ম ও জাতি দেখে নয়!

জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি। প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন। এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।

Tuesday, 7 April 2020

আপনার অনুপ্রেরণামূলক দক্ষতা কীভাবে উন্নত করবেন, সিরিজ-১০৬(প্রেরণা)[How to Improve Your Motivational Skill, Series-106 (Prerana)]


প্রেরণা সিরিজ - ১০৬,PRERANA SERIES-106 (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয়   নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog  স্বাগতম।  আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।



যদি কখনো আঘাত পান মনে ঠিক সেই মহুর্তে কি আকার ধারন করে, একবার নিজেই উপলব্ধি করুন, কোন ব্যাক্তির দ্বারা যদি হৃদয়ে পীড়া হয়, তখন ব্যাক্তির প্রতি ক্রোধ হয় এবং প্রতিশোধের অগ্নি মনে প্রস্ফুটিত হয়।বাস্তবে এমনটাই নয় কিকিন্তু আমরা যদি সেইক্ষণে মনের ভেতর অগ্নি কুন্ডের জন্ম না দিয়ে মন কে শান্ত করে রাখি সেটাই ভাল উপায় নয় কিকর্মের উপর ভিত্তি করে ফল পাব, একথা কি আমরা সবাই বিশ্বাস করি ?যদি কোনো ব্যাক্তি কোনো কারনে আপনার ক্রোধের কারণ হয় বা তার কারনে অগ্নি শিখা আপনার হৃদয়ে স্থাপন হয়, ঠিক সেই মহুর্তে নিজের মন কে শান্ত রাখার প্রয়াস অবশ্যই করবেন। ধৈর্য্য একটি মহৎগুন যা সবার মাঝে থাকেনা, যদি কেউ আপনাকে কটু কথা বলে গালি দেয় তাহলে ব্যাক্তির মুখ নষ্ট হবে, এতে পাপ বৃদ্ধি হবে ওর, আর আপনি ধৈর্যের সাথে পরিস্থিতি সামলানোর প্রয়াস যদি করতে পারেন এতে ভাল ফল আপনার প্রাপ্তি হবে। জগতে মানুষ মানুষের বিচার কি প্রকারে করবে, বিচার তো একমাত্র নিয়তিই  করে থাকেন, আর অন্যায় করলে এর শাস্তি ভোগ করতেই  হবে, কেবল আপনি বুঝতে পারবেন না যে কোন কাজের জন্য আপনার এই শাস্তি।

জীবনে যতই  ভালো উপদেশ শোনেন   না কেন , যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি  সেই সবের থেকে পাওয়া জ্ঞানকে নিজের জীবনে ব্যবহার না করছেন ,ততক্ষন অবধি সেই সবের কোনো মূল্যই নেইযে জ্ঞান আজ আপনাকে খারাপ  কাজ থেকে বিরত রাখতে পারে না ,সে জ্ঞান আপনাকে  শেষ চারে নিয়তির শাস্তি থেকেও বাঁচাতে পারবে না । জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি। প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন। এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে । বলা যায় আদর্শ যেন একটা মডেলের ন্যায় | তা দেখেই জীবন গড়ার চেষ্টা চলছে  ঐতিহাসিক ক্রম অনুসররণ করলে আমরা প্রথমেই পাই আদর্শ - আদর্শবাদ। আইডিয়ালিজিম - এটি প্রাচীনতম বটে সর্বকালীনও বটে কোনদিন এর পরিবর্তন সম্ভব নয় বেদের শিক্ষাই হলো নিজেকে জানার আদর্শবাদ। 


জীব এই জগতে বিভিন্ন প্রকারের জড় কামনা বাসনা নিয়ে কর্ম করে থাকে। কিন্তু সে তার প্রতিটি কৃতকর্মের ফলভোগ করতে বাধ্য থাকে। সেই কর্ম অনুসারে তাকে বারবার জড় শরীর ধারণ করতে হয়। নূতন শরীরে সে নূতন কর্ম করে ঐসব কর্মের ফল ভোগের জন্য আবার তাকে জন্ম নিতে হয়। রকম চলতেই থাকে। এইরূপ বদ্ধ অবস্থাকে বলা হয় কর্ম বন্ধন। যা অল্প সময়ের মধ্যে প্রাপ্ত হওয়া যায় কিন্তু ক্ষণস্থায়ী এবং অন্তিমে দুঃখজনক তাকে বলা হয় প্রেয়। যা লাভ করা পরিশ্রম সাপেক্ষ, কিন্তু চিরস্থায়ী এবং সুখদায়ক, তাকে বলা হয় শ্রেয়। আমাদের জীবনে শ্রেয় লাভ করাই শ্রেষ্ঠ বা উচিত। নিজের ইন্দ্রিয়ের বিধানের তৃপ্তি জন্য যে বাসনা তাকে বলে কাম। শ্রীকৃষ্ণের প্রীতি বিধানের জন্য যে বাসনা তাকে বলে প্রেম। জীবের অন্তরে রয়েছে শুদ্ধ ভগবৎ প্রেম। জীব যখন জড় জগতে পতিত হয়, তখন তাঁর শুদ্ধ ভগবৎ প্রেম বিকৃত কামে পরিণত হয়।

''কেকুলে রসায়নবিৎ ছিলেন। ইনি রসায়নশাস্ত্রের পরমাণু-সম্বন্ধীয় চিন্তায় শ্রান্ত-ক্লান্ত হইয়া একদিন সন্ধ্যায় গৃহে ফিরিতেছেন, পথিমধ্যে সহসা জ্যোতিষ্মান্ পরমাণুসমূহের নর্ত্তন তাঁহার দৃষ্টিপথে উদ্ভাসিত হইয়া উঠিল ইহাকেই দর্শন বলে। যোগীর দর্শনও এইরূপ বৈজ্ঞানিক দ্রষ্টা কেকুলের পরমাণুর নৃত্য-দর্শন আধুনিক বিজ্ঞান-জগতে এক চিরস্মরণীয় ঘটনা ; কারণ , ইহা হইতেই তিনি Benzene-এর গঠন-সম্বন্ধীয় মতবাদ প্রকাশ করলেন " --(তথ্য-সূত্র:- 'Encyclopedia Britannica', PP. 717-18, Vol.15, 1911 Ed.)


মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।