Thursday, 9 July 2020

যে বস্তুর কোনো উৎপত্তি নেই তার কোনো বিনাশ নেই | আপনার অনুপ্রেরণামূলক দক্ষতা কীভাবে উন্নত করবেন, সিরিজ-১২৮(প্রেরণা)[How to Improve Your Motivational Skill, Series-128 (Prerana)]

প্রেরণা সিরিজ - ১২৮,PRERANA SERIES-128 (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয় ।নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog  এ স্বাগতম।আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।

জীবনে খারাপ সময় না আসলে কখনোও ভালো সময়ের গুরুত্ব বোঝা যায় না। 


সংসারের মধ্যে থাকলে সুখ যেমন প্রাপ্তি হয় তেমনই প্রাপ্তি হয় দুঃখের কিন্তু সংসারের সাথে বিচ্ছিন্নতার ফলে প্রাপ্তি হয় পরমানন্দের । উৎপন্ন হওয়া বস্তুর বিনাশ হওয়াই স্বাভাবিক, যে বস্তুর কোনো উৎপত্তি নেই তার কোনো বিনাশ নেই | আত্মা অবিনাশী এবং অমর হয় কিন্তু এই শরীরের বিনাশ অবসম্ভাবী। কর্ম করে যাও কিন্তু ফলের চিন্তা করোনা। আমি কেবলমাত্র ঈশ্বরের এবং ঈশ্বর শুধু আমার, এটা মনে প্রাণে মানা মাত্রই ঈশ্বরের সাথে আমাদের সম্পর্ক জুড়ে যায়। যার কাছে সুখ, দুঃখ, মান ও অপমান সবই সমান, সেই একমাত্র সিদ্ধপুরুষ। মন-বাণী ও কর্মের দ্বারা কাউকে দুঃখ দিওনা। মনুষ্য সম্প্রদায় দুই ধরনের হয়ে থাকে, প্রথমটি দৈবীয় সম্প্রদায় আর দ্বিতীয়টি অসুরিও সম্প্রদায়।হে অর্জুন সমতাই যোগ |  – Shri Krishna 

সুখ-দুঃখ, লাভ-ক্ষতি, মান-অপমান এই প্রত্যেকটির মধ্যেই সমতা আছেযে দান বিনা সম্মানের সাথে কুপাত্রকে দেওয়া হয়ে থাকে, তাকে তম দান বলেএকটা উপহার দেওয়াকে তখনই আসল এবং পবিত্র বলে গণ্য করা হয় যখন সেটা আন্তরিকতার সাথে সঠিক মানুষকে, সঠিক সময়ে আর সঠিক জায়গায় দেওয়া হয়ে থাকে এবং উপহার দেওয়া ব্যক্তির মধ্যে কোনো ধরনের পাওয়ার আশা থাকেনাএমন কেউই নেই যে এই সংসারে ভালো কর্ম করেছে তার অন্ত খারাপ ভাবে হয়েছে | সেটা এই সময়েই হোক কিংবা পরবর্তী সময় যখন কোনো ব্যক্তি তার লক্ষ্যকে প্রাপ্ত করে ফেলে, তখন তার জীবনের সব দুঃখ ঘুঁচে যায় এবং জীবনে নতুন আনন্দ খুশি ভরে ওঠেপ্রত্যেক কাজকে ধৈর্য্য এবং করুণার সাথে করো। প্রকৃতি দ্বারা নির্ধারিত নিজের কর্তব্যকে পালন করা কোনো কাজ. মোটেই পাপ কাজ নয়আমি আত্মা, যে সকল প্রানীদের হৃদয়ের সাথে জুড়ে আছে | আমি সেই সাথে সকল প্রাণীর শুরু, মধ্যম এবং সমাপ্তিও |   – Shri Krishna  
আপনার মাঝে মাঝে খারাপ লাগে? লোকেরা কি আপনাকে  গুরুত্ব দেয় না ? আপনি চান্স নিতে এবং যা আপনাকে সত্যই খুশী করে তা করতে ভয় পান, তাই আপনি প্রায়শই কেবল অন্য লোকের মতামত অনুসারে নিজেকে তৈরী  করেন? আপনার কি আজকে  শোকার্ত লাগছে। দু: খিত হবেন না,পরিবর্তে খুশি হন। সুখ ' প্রত্যেককে জীবনে যা অর্জন করা উচিত তাই এবং সেটা মানসিক চাপ অনুভবের  পরিস্থিতি, অস্বস্তিকর অনুভূতির পরিস্থিতিতে  এবং চ্যালেঞ্জিং বাধা এড়ানোর সময়। যারা প্রকৃতপক্ষে মানুষের মন এবং আচরণ নিয়ে অধ্যয়ন করে, তারা বলছেন, এগুলি এমন নয় যা আপনার মানসিকতাকে শক্তিশালী করে, মানসম্পন্ন অভ্যাস বিকাশ করে। এগুলি আপনার ব্যক্তিত্বকে আকার দেয় এবং আপনাকে আরও শক্তিশালী ব্যক্তি করে তোলে। কেউ এই মানুষকে বিজ্ঞানী বলে, কেউ তাদের বিশেষজ্ঞ বলে। সর্বদা খুশি থাকুন, কারণ অন্য কোনও আবেগ থাকা অপ্রাকৃত।
সমালোচনা খুব খারাপ। এটি নিজেকে উন্নত করতে পারে এমন কিছু নয়।আপনি যদি জীবিত থাকেন তবে আপনি দুর্দান্ত। আপনি ভাল কাজ করে, আপনার দক্ষতা এবং জ্ঞানকে এগিয়ে দিয়ে, কঠোর পরিশ্রম করে এবং নিজেকে স্মার্ট, সক্ষম এবং আকর্ষণীয় ব্যক্তি হিসাবে গড়ে তোলার মাধ্যমে একটি ভাল ব্যক্তি হয়ে উঠতে পারেন।লোকেরা যদি আপনার সাথে কথা বলা ঘৃণা করে এবং সামাজিক যোগাযোগ এড়ায়, তবে আপনি ভাববেন না যে আপনার কিছু ভুল হয়েছে। আপনি খুব বেশি কথা বলতে পারেন? সম্ভবত আপনি অনেক সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন? আপনার কাছে বলার মতো গুরুত্বপূর্ণ কিছু নেই? এই জিনিসগুলি ভুলে যান । মনে রাখবেন, আপনার কোনও খারাপ লক্ষণ নেই। আপনার আচরণে কোনও ত্রুটি নেই। উন্নতির কোন সুযোগ নেই আপনি যেমন আছেন তেমনটাই  নিখুঁত।

জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি। প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন। এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে ।

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন। এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।
Secrets of Motivation & Inspiration


Thursday, 18 June 2020

হতাশ হবার কিছু নেই, আপনার হাতে এখনো অনেক সময় আছে , শুধু চেষ্টাটি প্রয়োজন! আপনার অনুপ্রেরণামূলক দক্ষতা কীভাবে উন্নত করবেন, সিরিজ-১২৭(প্রেরণা)[How to Improve Your Motivational Skill, Series-127 (Prerana)]



প্রেরণা সিরিজ - ১২৭,PRERANA SERIES-127 (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয় ।নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog  এ স্বাগতম।আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।






মাত্র বছর বয়সে তিনি বাবাকে হারান।  ১৬ বছর বয়সে স্কুল থেকে ঝড়ে পড়েন।  ১৭ বছরের মাথায় মোট বার চাকরী হারিয়েছিলেন ১৮ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ১৯ বছর বয়সে তিনি বাবা হন ২০ বছর বয়সে তার স্ত্রী তাঁকে ফেলে রেখে চলে যায় আর কন্যা সন্তানটিকেও নিয়ে যায় সাথে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন এবং সেখানে ব্যর্থ হন ইনস্যুরেন্স কোম্পানীতে যোগদান করেন এবং সেখানেও সফলতার দেখা পান নি নিজের মেয়েকে নিজেই অপহরণ করতে গিয়েছিলেন এবং সেখানেও ব্যর্থ হন চাকরী নিয়েছিলেন রেললাইনের কন্ডাকটর হিসেবে, সুবিধে করতে পারেন নি অবশেষে এক ক্যাফেতে রাধুনীর চাকুরী নেন ৬৫ বছর বয়সে তিনি অবসরে গিয়েছিলেন। অবসরে যাবার প্রথম দিন সরকারের কাছ থেকে ১০৫ ডলারের চেক পেয়েছিলেন। তাঁর কাছে মনে হয়েছিল জীবন তাঁর মূল্যহীন আত্মহত্যা করবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। 

এরপর একটী গাছের নিচে বসে জীবনে কি কি অর্জন করেছেন তাঁর একটা লিস্ট বানাতে শুরু করলেন। হঠাত তাঁর কাছে মনে হল জীবনে এখনো অনেক কিছু করবার বাকি আছে আর তিনি বাকি সবার চাইতে একটি জিনিসের ব্যাপারে বেশি জানেন- রন্ধনশিল্প তিনি ৮৭ ডলার ধার করলেন সেই চেকের বিপরীতে আর কিছু মুরগী কিনে এনে নিজের রেসিপি দিয়ে সেগুলো ফ্রাই করলেন। এরপর Kentucky তে প্রতিবেশীদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে সেই ফ্রাইড চিকেন বিক্রি করা শুরু করলেন! জন্ম নিল KENTUCY FRIED CHICKEN তথা KFC ... ৬৫ বছর বয়সে তিনি আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন আর ৮৮ বছর বয়সে এসে Colonel Sanders বিলিওনার বলে গণ্য হয়েছিলেন। স্মরণীয় হয়ে আছেন KFC এর প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে!হতাশ হবার কিছু নেই, আপনার হাতে এখনো অনেক সময় আছে বিলিওনার হবার...শুধু চেষ্টাটি প্রয়োজন!


এই সংসার প্রতিটা মূহুর্তে পরিবর্তন হচ্ছে, আর পরিবর্তনশীল বস্তু সর্বদা অসত্যই হয় বাহ্যিক বস্তুর ত্যাগকে বাস্তবে ত্যাগ বলেনা, আন্তরিক ত্যাগই হচ্ছে প্রকৃত ত্যাগ | আমাদের কামনা, মমতা, আসক্তিই হচ্ছে বন্ধনযুক্ত কিন্তু সংসার তা নয় নিজের কথা ভেবে কর্ম না করলেই কর্মের থেকে বন্ধন ভেঙ্গে যায়, আর এই কর্মই হচ্ছে নিষ্কাম কর্মসজ্জন ব্যক্তি আরো ভালো চরিত্রের সজ্জন ব্যক্তির সাথে, নীচ ব্যক্তি আরো নীচ চরিত্রের ব্যক্তির সাথেই থাকতে চায় | স্বভাব দ্বারা জন্ম যার যেমন প্রকৃতি হয়, সে তার সেই প্রকৃতিকে কখনোই ছাড়েনা দৈবীয় প্রভা দ্বারা সমৃদ্ধ পুরুষের মধ্যে, সর্বদা ভয়ের অভাব এবং সবার প্রতি প্রেমভাব থাকে – Shri Krishna
যেটা ঘটতে চলেছে সেটা ঘটবেই, যা ঘটবে না তা কখনোই ঘটবে না এরকম নিশ্চয়তাপূর্ণ মনোভাব যার মধ্যে আছে; তাকে দুশ্চিন্তা কখনোই কষ্ট দিতে পারেনা। ভয়, রাগ, ঘৃনা আসক্তিতে অপূর্ণ মানুষই, এই লোক এবং পরলোকে সুখ পায় অহংভাবই মানুষের মধ্যে বিভিন্নতা সৃষ্টি করেঅহংভাবের অভাব থাকলে পরমাত্মার সাথে বিভিন্নতার কোনো আর কারণই থাকেনা আমি করি’, এই ভাব যখনই কারোর মধ্যে উৎপন্ন হয়, তখন সেটাকেই বলে অহংকার সাধারণ মানুষ এই শরীরকে ব্যাপক হিসাবে ভাবে, সাধক পরমাত্মাকে ব্যাপক হিসাবে ভাবে | যেমন শরীর এবং সংসার এক, সেইরকমই স্বয়ং এবং পরমাত্মা একই যে মানুষ ভাবে নিদ্রা, ভয়, চিন্তা, দুঃখ, অহংকার এরকমের আদি দোষ সর্বদা থাকবেই, সেই মানুষ প্রকৃত পক্ষে একজন কাপুরুষ – Shri Krishna

জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি। প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন। এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে ।

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন। এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।