Saturday, 28 March 2020

এমন কোনো চিন্তাভাবনা যা অন্যরা করেনি , আপনাকে সকলকে ছাড়িয়ে অনেকদূর নিয়ে যাবে [How to Improve Your Motivational Skill, Series-101(Prerana)]

লেখক – প্ৰদীপ কুমার রায়।

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে,করে দেবে এবং ডানদিকের উপরের কোনে অনুসরণ বাটন অবশ্যই ক্লিক করে অনুসরণ করবে।শুরু করছি আজকের বিষয় 
নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog   স্বাগতম।আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।





কথায় বলে,  দূর থেকে কাশবন ঘন দেখায় ।  নদীর এপার থেকে ওপারে তাকালে দেখা যাবে,  ঘন গাছপালা ।  কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখা যাবে গাছপালা যতটা ঘন মনে হচ্ছিল,  ততটা নয় ।  তাই দূরের জিনিস দেখতে যতই সুন্দর হোক না কেন, কাছের জিনিস এর থেকে বেশি মূল্যবান নয় ।  দূরের  জিনিসটি আপনি চাইলেই যে পাবেন,  তার কোন নিশ্চয়তা নেই । কিন্তু আপনার কাছে যে জিনিসটি রয়েছে,  সেটা আপনার কাছে এখনই রয়েছে। তার চলে যাওয়া বা যাওয়ার কোনো রকম অবস্থা নেই।একজন মানুষ ঠিক যেমন ভাবে তার জীবনকে ভাববেন,  তার জীবন তেমনি হবে । শুরুতে যদি একটি ইতিবাচক চিন্তা ভাবনা নিয়ে দিনটা শুরু করেন,  তাহলে দেখা যাবে তার দিনটা খুব ভালো যাবে এবং সারাদিনে কিছু ইতিবাচক কাজ তিনি করতে পারবেন । আর যদি দিনে শুরু হয় একটি নেতিবাচক ভাবনা দিয়ে,  তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে দিনটাও নেতিবাচক কাটবে ।

সবাই যেভাবে চলছে,  ঠিক একই ভাবে তাদের অনুসরণ করে আপনি চললে আপনি বেশিদূর জীবনে এগোতে পারবেন না । জনসমুদ্রে কেউ না কেউ কিছু না কিছু করছে,  আপনিও তাদের অনুসরণ করে যদি একই কাজ করেন,  তাহলে তাদের মতই আপনি একই জায়গায় থাকবেন ।  কিন্তু যদি আপনি আলাদা কোনো চিন্তাভাবনা করেন এবং অন্যরা সেই চিন্তাটা করেনি এমন কিছু করতে পারেন,  তাহলে আপনাকে একটা জায়গায় আটকে থাকতে হবে না । আপনি সকলকে ছাড়িয়ে অনেকদূর পৌঁছতে পারবেন । আপনি যদি মনে মনে এটা জেনে থাকেন যে আপনি যা করছেন, সেটা ঠিক নয়, অস্বাভাবিক এবং অন্য কারো ক্ষতি হচ্ছে, তাহলে জীবনের শেষ পর্যায়ে এসে আপনার সাথেও খারাপ হবে (Motivational Bhagavad Gita Quotes) । সেইজন্য খারাপ কাজ করার কথা মনেও আনা উচিত না। সন্দেহ একটি মানসিক রোগ, যা শুধু আপনাকেই না, আপনার চারপাশের মানুষজনকেও একটা অস্বস্তিকর পরিবেশে ঠেলে দেয় । গীতায় (Gita Bani Bangla) বলা আছে, যে ব্যক্তি সন্দেহপ্রবন হয়, সে ইহলোক কিংবা পরলোক কোথাও গিয়েই শান্তি পায়না । সন্দেহ শুধু অশান্তি ডেকে আনে ।যখন আপনি কোনো রকম প্রত্যাশা না নিয়ে কোনো কাজ করেন, তাতে নিরাশ হবার সম্ভাবনা অনেক কমে যায় । আমাদের জীবনে মোটামুটি সব সমস্যার মূলেই প্রত্যাশা জড়িয়ে আছে।

দেখে শেখো, ঠেকে নয় ।--তামিলনাড়ুর রামেশ্বরম গ্রাম, বলা যায় ভারতবর্ষের দাক্ষিণাত্যের প্রায় শেষ সীমা। সেখানেই একটি হতদরিদ্র তামিল মুসলিম মাঝির পরিবারে ১৯৩১ সালে জন্মগ্রহন করে এক ছোট্ট শিশু। দারিদ্র্যের কারণে ছোটবেলা থেকেই বাস্তবকে খুব কাছ  থেকে দেখতে পায় শিশুটি। একটু বড় হতেই নিজের পড়ার খরচ চালাতে লোকের বাড়িতে কাগজ বিলি শুরু করে সে। শুধু তাই-ই নয়, পরিবারের অনেকটা খরচের দায়িত্বও নিজের কাঁধে তুলে নেয়। পড়াশুনায় যে খুব তুখোড় ছিল ছেলেটি, তা নয়, তবে শেখার ইচ্ছে ছিল অদম্য। তাঁর এই শেখার ও জানার ইচ্ছেই যে তাঁকে ভারতবর্ষের রাষ্ট্রপতি পদ পর্যন্ত নিয়ে যাবে, সেকথা সেদিন কে ভেবেছিল! আজ্ঞে হ্যাঁ, কথা বলছি ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি এবং স্বনামধন্য বৈজ্ঞানিক এপিজে আবদুল কালামের বিষয়ে।

জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি| প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন ।এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে ।

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।


No comments:

Post a comment