Wednesday, 4 September 2019

How to Improve Your Motivational Skill, Series 27 (Prerana)


প্রেরণা সিরিজ - ২৭ ,  PRERANA SERIES - 27    (Motivational & Inspirational)
লেখক – প্রদীপ কুমার রায়।
                                                  আগেই বলে নিচ্ছি কেননা তোমরা পরে ভুলে যাবে বাকি অন্যান্যদের  সাহায্যের উদ্দেশ্যে শেয়ারটা মনে করে, করে দেবে। শুরু করছি আজকের বিষয় 
                                         নমস্কার বন্ধুরা আমি প্রদীপ  তোমাদের সবাইকে আমার এই Pkrnet Blog   স্বাগতম।আশা করি সবাই তোমরা  ভালোই  আছো  আর  সুস্থ আছো।

                                      Blog on Tour & Travel ( Non-Highlighted Place )

                              মনের স্বাভাবিক বিচরণ যাতে ব্যাঘাত  না ঘটে তার প্রতি মনোনিয়োগ জরুরি ।মনের পরিচর্চা এবং কোনো কারনে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে গতিহীন হয়ে পড়লে তার মেরামত করাও তেমনি জরুরি যাতে , মন তার স্পষ্ট গতি রাখতে সক্ষম হয়। মনকে শান্ত, সুষ্ঠ ও প্রাণপূর্ন রাখতে পরিচ্ছন্ন হালকা ঢিলেঢালা পোশাক, মুখ ও মুখের ভিতর এবং শরীর পরিচ্ছন্ন রাখা , খোলামেলা স্থানে বিচরণ, পরিষ্কার বিছানায় শয়ন, সহজপাচ্য খাদ্য গ্রহণ ইত্যাদির দিকে নজর দিতে হবে।

                             বই পড়ার শখ একটি চমৎকার অভ্যাস। নানা ধরনের বই পড়লে তা তোমাদের মনকে প্রসারিত করবে। কোনও  বিষয়কে আর পাঁচটা মানুষের তুলনায় অন্যভাবে দেখতে শেখায়, ভাবতে শেখায়। তবে এই শখ যেন পড়াশোনার ক্ষতি না করে। আমাদের মনটা আসলে একটা বেলুনের মতো। যদি তাতে হাওয়া না ভরো তাহলে সেটা চুপসে ছোট হয়ে যাবে কিন্তু যত  হাওয়া ভরবে বেলুনটা ততই বড় হতে থাকবে। এটাকেই মনের প্রসার বলে। 

                              সাহিত্য পাঠে  মনের যতখানি প্রসার হয়, তেমনটা আর কিছুতে হয় না। যত পড়বে, দেখবে ততই তোমার চিন্তা ভাবনা প্রসারিত হচ্ছে ,বড় করে ভাবতে পারছো,নতুন নতুন বিষয়ে আগ্রহ তৈরি হচ্ছে, আর পাঁচজনের চেয়ে অন্যভাবে ভাবতে পারছো। তোমার স্কুল, কলেজের পড়াশোনার এবং কর্মক্ষেত্রের ওপরেও  এর প্রত্যক্ষ ভাবে প্রভাব পড়বে। কিন্তু তার চেয়েও বেশি প্রভাব পড়বে পরোক্ষভাবে। গল্পের বই যাদের টানে, তারাই জানে যে, সেই টান  কত জোরদার। কাজেই, তোমার লেখাপড়া আর বাইরের বই পড়া-- এইদুটোর মধ্যেই একটা  ভারসাম্য আনতে  হবে।
LIGHT WE CANNOT SEE 

                              আত্মা ,মন, শরীরের পৃথক বস্তু নয়,এরা একই বস্তু। এই একই বস্তুই কখনো দেহ, কখনো মন, কখনো বা দেহ-মনের অতীত আত্মা বলে মনে হয়। যিনি শুধু শরীর দেখছেন তিনি মন দেখতে পাচ্ছেন না , যাঁর দৃষ্টি মন অবধি তিনি আত্মা দেখতে পাচ্ছেন না আবার যিনি আত্মা দেখতে বা বুঝতে পারছেন তাঁর দৃষ্টিতে শরীর ও মন নাই। যিনি কেবল গতি দেখতে পান  তিনি স্থির শান্তভাব দেখতে পান না, আবার যিনি পরম শান্তভাব দেখতে পান তার কাছে গতি বা চঞ্চলতা অদৃশ্য হয়ে যায়। বস্তু  একটিই , শুধু প্রকাশিত হচ্ছে নানারকম ভাবে। যতক্ষন কেউ দুটি বস্তুর কল্পনা করেন, ততদিন তিনি ভ্রান্ত , যখন তিনি জানতে পারবেন সত্তা একটিই, তখনি তিনি সঠিক।

                            যত দিন যাচ্ছে এই সত্যই ক্রমশঃ প্রমাণিত হচ্ছে। বিজ্ঞান বলছে যে, এই জগতে শক্তির সৃষ্টি করা যায় না বা ধ্বংস করা যায় না, কেবলমাত্র শক্তির রূপান্তর করা যায়। প্রাথমিক ভাবে শক্তির আটটি রূপ জানা গিয়েছিলো --- তাপ শক্তি, যান্ত্রিক শক্তি , বিদ্যুৎ শক্তি  ইত্যাদি। কিন্তু সাম্প্রতিক কালে বিজ্ঞান প্রমান করেছে যে, সমস্ত শক্তিই প্রধানত তিনটি শক্তির রূপান্তর এবং অদূর ভবিষ্যতে এটা  প্রমান হয়ে যাবে যে সমস্ত শক্তিই একটি শক্তিরই রূপান্তর মাত্রা। এই বিষয়ে বিভিন্ন দেশের বৈজ্ঞানিকরা অবিরাম কাজ করে চলেছেন।

                             পরিস্থিতি যখন তোমার  পক্ষে নয়  তখনই  তোমার  মনের দৃঢ়তা  নির্ধারণ করা সম্ভব । তোমার  স্বপ্ন বা লক্ষ্যগুলি যত বড়,  তুমি  তত বেশি সমস্যায় পড়বে। প্রতিটি সমস্যাই  তোমাকে  চ্যালেঞ্জর  মুখে এনে দাঁড় করাবে,  তবে প্রতিটি চ্যলেঞ্জ  তোমাকে একধরনের  সুযোগও এনে দেবে। যখনই তোমার  মনে হযে  যে  পতন হচ্ছে বা যখন প্রত্যাশা অনুযায়ী জিনিসগুলি ঘটছে না তখন নিজেকে বলো , "এটি কিছুটা সময় নিতে পারে তবে তা ঘটবে”।মনে রাখবে যে তুমি  এই ঝামেলাগুলির সাথে যত বেশি মোকাবেলা করতে পারবে তত বড় জীবন তোমাকে  পুরষ্কার দেবে। ডেনিস ওয়েটলি বলেছিলেন,"স্থির নিশ্চয়তা তোমাকে, তোমার সামনের  রাস্তাগুলি বন্ধ থাকা সত্ত্বেও তা চালিয়ে যাওয়ার সংকল্প দেয়”।

জীবনে অনুপ্রেরণার গুরুত্ব যে কতটা, তা আমরা কমবেশি  প্রত্যেকেই জানি| প্রত্যেক মানুষই চায়  তারা যেন সর্বদা অনুপ্রাণিত থাকেন |
এই অনুপ্রেরণা মূলক বিচার গুলিকে বাস্তব জীবনে ঠিক  মত মেনে চললে যে কোনো মানুষের জীবন অনয়াসেই বদলে যেতে পারে 
মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।
এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে তোমাকে  অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই  পিকেআর নেট  ব্লগ - এর পক্ষ থেকে | 
পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও |তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে ভীষনভাবে সাহায্য করে।


No comments:

Post a comment