Saturday, 10 August 2019

How to Improve Your Motivational Skill, Prerana Series-10

প্রেরণা সিরিজ - ১০
লেখক – প্রদীপ কুমার রায়
                                                       অন্যের কথা শুনবে কিন্তু যা শুনবে তা সত্যের ছাঁকনিতে ছেঁকে সার টুকুই নেবে। জানবে এই সংসারে দুর্বৃত্ত যেমন আছে তেমন গুণসম্পন্ন মানুষও আছে। শত্রূ  যেমন আছে তেমন বন্ধুও আছে। নিজের বিশ্বাসে অটল থাকতে হবে। লক্ষ্য স্থির করার জন্য বাস্তববাদী হওয়া  প্রয়োজন। অবাস্তব লক্ষ্য অপূর্ণ থেকে যায়, ফলে আত্মসম্মান ক্ষুণ্ণ হয়।
Motivation

   নিজের কাজ সম্পর্কে সচেতন হতে হবে এবং সবরকম লোককে মানিয়ে নিয়ে চলতে হবে। অহং  বা কর্কশ মেজাজী হবে না। অনুভূতিশীল , ধৈর্য্যশীল , সুদক্ষ হওয়ার পাশাপাশি অপরের ভাবনাও ভাবতে হবে। আত্মপ্রত্যয় না থাকলে জীবনে সাফল্য আসে না। কেউ আত্মপ্রত্যয় সঙ্গে নিয়ে জন্মায় না। আত্মপ্রত্যয় গড়ে তুলতে হয়। এটা নিয়মিত অভ্যাস ও অনুশীলন দ্বারাই সম্ভব। আত্মপ্রত্যয় ফিরে  পাওয়ার জন্য ভয়কে দূর করতে হবে এবং সম্পূর্ণরূপে বিচ্ছিন্ন করতে হবে। ভয় পাওয়ার কারনটা খুঁজে বার করো এবং তারপর সক্রিয় হয়ে ওঠো। দৃঢ় সিদ্ধান্ত নাও। ক্লাসে প্রথম বেঞ্চিতে বসতে হবে । পাচ্ছে দৃষ্টি আকর্ষিত হয় এইভেবে পিছনের বেঞ্চিতে বসবে  না। অন্যের চোখে চোখ রেখে কথা বলার অর্থ তুমি সৎ , তুমি সাহসী। তোমার নিজের উপর বিশ্বাস আছে। তোমার আত্মপ্রত্যয়  আছে। আত্মপ্রত্যয় গড়ে তুলতে দ্রুত হাঁটার পদ্ধতি অনুসরণ করো। মাথা  তুলে, কাঁধ সোজা রেখে দ্রুত হেঁটে দেখ , এক অদ্ভুত আত্মপ্রত্যয় ও আত্মবিশ্বাস তোমার মধ্যে তৈরী হবে।

                                                  নিজেকে উন্নত করার জন্য বড় বড় পরিকল্পনা , আকাশ ছোঁয়ার সংকল্প , এসব না হলেও কোনো ক্ষতি নেই। আসলে চাই ঠিক ঠিক অভ্যাস আর সেটা করতেই পারলেই ফল মিলবে ভবিষ্যতেও। গ্রীক দার্শনিক এরিস্টটল  বলেছিলেন "নিয়মিত অভ্যাসই  স্বভাবকে তৈরী করে। যন্ত্রের মতো কাজ করে যাওয়া নয়, সচেতন ভাবে নিষ্ঠার সঙ্গে কিছু সৎ গুণের অনুশীলন করে চললে সেই গুণগুলি চরিত্রের অঙ্গ হয়ে দাঁড়ায়। তার থেকেই আসে সাফল্য , আসে মানসিক পরিতৃপ্তি"। শীর্ষে  রাতা  রাতি উঠা যায় না, তার জন্য চাই নিয়ম, নিষ্ঠা এবং পরিশ্রম।
                                              প্রতিযোগিতায় সফল হতে চাইলে দরকার ঠিক সময়ে প্রস্তুতি শুরু করা এবং তৈরী হওয়ার পরিকল্পনা গুছিয়ে নেওয়া। তারপর লক্ষ্যভেদ। লেগে থাকাটাই  আসল চ্যালেঞ্জ। টাইম ম্যানেজমেন্ট  খুবই গুরুত্বপূর্ণ । গোগ্রাসে পড়তে হবে , তার থেকে জানার, বোঝার, আয়ত্তে আনার যে বিশাল জমি পরে রয়েছে তা তিল তিল করে আবিষ্কারের আনন্দ উপভোগ করতে পারবে। পড়াশুনার একটা জরুরি জিনিস হলো প্রশ্ন করা । প্রশ্ন থেকেই শেখার শুরু । বিতর্ক মানে পরাজয়ের সাথে নিজের কথা বলতে পৰ এবং প্রতিপক্ষের কথা মন দিয়ে শোনা। লেখাপড়ার ক্ষেত্রে এই গুণটি দারুন কাজে লাগে।

মোটিভেশনাল ভিডিও দেখতে উপরের ডানদিকের কর্নারে YouTube লিঙ্ক অথবা  এখানে Pkrnet এই লিঙ্কটির উপর ক্লিক করুন।

No comments:

Post a comment